সাহসী নারী | লেখক-অংকুর রায় অনিক

মাথায় কিছু একটা চলছে। দ্রুতই ঘটে যাবে কোনো ঘটনা। অদম্য সেই বাসনাকে দমন করা দুঃসাধ্য। এই পথ দিয়েই মেয়েটাকে কয়েকদিন ধরে চলাফেরা করতে দেখছি। আজ একা পেয়েছি। রাত খুব বেশি নাহলেও এই রাস্তাটি খুব নির্জন। লোকজন তেমন চলাচলা করে না বললেই চলে।

মুখ চেপে ধরে টেনে পাশের ঝোপ ঝাড়ে নিতে পারলেই হলো। এমন যৌন আবেগগুলো সুড়সুড়ি দিচ্ছে সোহেলের মনে। মাঝে মাঝে তার বিবেক তাকে সিগন্যাল দিচ্ছে সে ভুল করতে চলেছে। কিন্তু সে তার বিবেকে বুঝ দিচ্ছে, না এটা করলে কোনো অন্যায় হবেনা। কেন অন্যায় হবে না, এটাও সে বিবেকের কাছে পরিষ্কার করলো। অন্যায় হবে না কারণ মেয়ে মানুষ রাতের বেলা বাসার বাইরে থাকবে কেন!

বরং মেয়েটা অন্যায় করেছে। আবার বোরকাও পড়েনি। নিজের শরীর দিয়ে আমাকে আকর্ষণ করছে। না, এটা অন্যায় হবে না। আজ যা কিছু ঘটবে এটা তো ওর প্রাপ্য। নিজের বিবেককে সোহেল বুঝ দিয়ে নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আনলো। এখন আর একাজে কোনো বাঁধা নেই। সবচেয়ে বড় বাঁধা ছিল বিবেক, তবে তাকে সে বুঝদান করে ঘুম পাড়িয়ে দিয়েছে।

 

চাঁদের আবছা আলোতে সে দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে রাস্তার মধ্যে সিগারেট খাচ্ছে এবং মিথিলার বুকের দিকে অপলক দৃষ্টিতে তাকিয়ে আছে। মিথিলা হেঁটে আসছে তার দিকে। মিথিলা সোহেলকে ক্রস করেছে ঠিক সেই মুহূর্তেই ঘটে গেল ঘটনা। মিথিলার মুখ পিছন থেকে চেপে ধরে তাকে টেনে হিঁচরে আড়ালে নেওয়ার চেষ্টা করছে সোহেল।

যেন এক পৈশাচিক শক্তি ভর করেছে সোহেলের মধ্যে। মিথিলা সদ্য ডাঙ্গায় তোলা মাছের মতো শরীর নাড়াচাড়া করছে। কিন্তু সোহেলের পৈশাচিক শক্তির কাছে তার এ ছটফটানি অতি তুচ্ছ। প্রায় ঝোপের আড়ালে নিয়ে এসেছিল মিথিলাকে। হঠাৎই কি যেন ঘটে গেল।

সোহেল মিথিলার শরীর ছেড়ে দিয়ে জ্ঞান হারিয়ে মাটিতে পড়ে গেল। মিথিলা তার হাতের চেতনা নাশক স্প্রে-টা রাখলো তার ভ্যানিটিব্যাগে। এবার মিথিলা নিজেই তার সর্বশক্তি দিয়ে সোহেলকে টেনে নিয়ে যাচ্ছে ঝোপের আড়ালে। মিথিলা তার ব্যাগ থেকে একটি সিরিন্জ বের করে ইনজেকশন পুশ করলো সোহেলের শরীরে।

সোহেলের পুরুষাঙ্গটি কেটে তার মুখে ডুকিয়ে রেখে চলে গেল। সোহেলের মৃতদেহের পাশে পরে রইলো একটি লিফলেট। তাতে লেখা- “আমি নিজের পুরুষাঙ্গকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে না পারায়, সেটি কেটে ফেললাম। যারা নিজের পুরুষাঙ্গকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে পরেন না, তাদের প্রতি আমার এই একই পরামর্শ রইলো”

Writer- Ankur Roy Anik
Writer- Ankur Roy Anik

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *